1. jakariaalfaj@gmail.com : admin2020 :
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:১১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং :
অতিরিক্ত ট্রাক ভাড়া ও সিন্ডিকেটের কারণে পেঁয়াজের দাম বাড়ে টেকনাফে সাংবাদিকদের সাথে সাক্ষাৎকালে মেয়র হাজী মোঃ ইসলাম বললেন, সবার মনে জেগে উঠুক দেশপ্রেম ইউএনও পারভেজ চৌধুরীর সাথে সাক্ষাৎ করলেন টেকনাফ পৌর প্রেসক্লাব টেকনাফ মডেল থানার ওসি হাফিজুর রহমানের সাথে সাক্ষাৎ করলেন টেকনাফ পৌর প্রেসক্লাব টেকনাফ পৌর প্রেসক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত, সভাপতি গিয়াস উদ্দিন, সাধারন সম্পাদক শাহীন, সাংগঠনিক সম্পাদক রহমত উল্লাহ টেকনাফ পৌর প্রেসক্লাবের আহবায়ক কমিটি গঠিত, আহবায়ক ভূলু, যুগ্ন আহবায়ক শাহীন টেকনাফে অর্থনৈতিক অঞ্চল ঘুরে দেখলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব টেকনাফ সাবরাংয়ে চাঁদার টাকা না পেয়ে এক কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে জখম টেকনাফে নির্বাচিত প্রার্থী এনাম মেম্বারের লোকজনের হামলায় ভাংচুর ও লুটপাট টেকনাফে প্রতিপক্ষের হামলায় নির্বাচিত মেম্বার এনামের ভাই গুরুতর আহত

সিনহা হত্যা মামলা: পলাতক আসামি কনস্টেবল সাগরের আত্মসমর্পণ

টেকনাফ ভয়েস ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১
  • ৩৮ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজারের টেকনাফে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার পলাতক আসামি পুলিশের কনস্টেবল সাগর দেব আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) দুপুরে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালতে তিনি আত্মসমর্পণ করেন তিনি। এরপর শুনানি শেষে আদালত তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ফরিদুল আলম চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ঘটনার পর থেকে দীর্ঘ ১০ মাসের বেশি সময় পলাতক ছিলেন টেকনাফ থানার সাবেক পুলিশের কনস্টেবল সাগর দেব। তখন থেকে অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তার সন্ধান পায়নি তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

পিপি বলেন, আত্মসমর্পণের পর তিনি তার জামিন আবেদন করেছেন আইনজীবী। সে আবেদনের শুনানি আদেশের অপেক্ষায় রেখেছেন বিজ্ঞ বিচারক। এদিকে গেল ১০ জুন ওসি প্রদীপের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন তার জামিন আবেদন করেন। গেল ৯ আবার ৯ জুন নন্দ দুলালের জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবী।

রোববার (১৩ জুন) দুপুরে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালত তাদের আবেদন শুনানির জন্য আগামী ২৭ জুন নির্ধারণ করেছেন।

আলোচিত মেজর সিনহা হত্যা মামলায় ২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খায়রুল ইসলাম।

ওই বছরের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে গাড়ি তল্লাশিকে কেন্দ্র করে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাখেদ খান।

এ ঘটনায় গত ৫ আগস্ট নিহত সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়েছে বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সাবেক ইনচার্জ পরিদর্শক লিয়াকত আলীকে প্রধান আসামি করে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯ জন পুলিশ সদস্যকে আসামি করা হয়। আদালত মামলাটির তদন্ত করার আদেশ দেন র‌্যাবকে।

এরপর গত ৬ আগস্ট প্রধান আসামি লিয়াকত আলী ও টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৭ পুলিশ সদস্য আদালতে আত্মসমর্পণ করেন।

পরবর্তীতে সিনহা হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার সংশ্লিষ্টতা পাওয়ার অভিযোগে পুলিশের দায়ের মামলার ৩ জন সাক্ষী এবং শামলাপুর চেকপোস্টের দায়িত্বরত আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ ছাড়া একই অভিযোগে পরে গ্রেফতার করা হয় টেকনাফ থানা পুলিশের সাবেক সদস্য কনস্টেবল রুবেল শর্মাকেও।

মামলায় গ্রেফতার ১৪ আসামিকে র‌্যাবের তদন্তকারী কর্মকর্তা বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এদের মধ্যে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও কনস্টেবল রুবেল শর্মা ছাড়া ১২ জন আসামি আদালতে ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

সিনহা হত্যার মামলাটি বেআইনি ও অবৈধ দাবি করে ২০২০ সালের ৪ অক্টোবর কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে প্রধান আসামি লিয়াকতের আইনজীবী মাসুদ সালাহ উদ্দিন একটি মামলা করেন। ওই দিন আদালত মামলাটির পূর্ণাঙ্গ শুনানির জন্য ২০ অক্টোবর দিন ধার্য করেন।

কিন্তু শুনানির ওই নির্ধারিত দিনে সিনহা হত্যার মামলার বাদী শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস অসুস্থতার কারণে আদালতে উপস্থিত থাকতে না পারায় পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেন ১০ নভেম্বর।

অন্যদিকে মামলাটি শুনানির ওই নির্ধারিত দিনে (১০ নভেম্বর) সিনহা হত্যার মামলাটি বেআইনি ও অবৈধ ঘোষণা চেয়ে আবেদনকারীপক্ষের আইনজীবী মাসুদ সালাহ উদ্দিন অসুস্থ হয়ে পড়েন। এতে মামলাটির পূর্ণাঙ্গ শুনানির দিন আবারও পিছিয়ে যায়।

১০ নভেম্বর আদালত মামলাটির পূর্ণাঙ্গ শুনানির জন্য ১৩ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেন। এ মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার পর দুদকের একটি দুর্নীতি মামলায় চট্টগ্রাম আদালতে হাজির হতে হচ্ছিল ওসি প্রদীপকে। সে সুবাধে তাকে ২০২০ সালের নভেম্বরে চট্টগ্রাম কারাগারে পাঠানো হয়।

মুহিববুল্লাহ মুহিব/এনএ

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 teknafvoice
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com