1. jakariaalfaj@gmail.com : admin2020 :
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০২:৪৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং :
টেকনাফ পৌরসভা ও বাহারছড়া ইউনিয়ন নির্বাচনে ১৫৪ জনের মনোনয়ন দাখিল টেকনাফে স্কাসের কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার উদ্বোধন টেকনাফ ২ বিজিবির নবাগত অধিনায়কের সঙ্গে সাংবাদিকদের মতবিনিময় সভা টেকনাফে যানজট নিরসনে ফুটপাতে ২০ দোকান উচ্ছেদ টেকনাফ পৌরসভার কাউন্সিলর প্রার্থী ওমর ফারুকের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ‘পরিবেশ রক্ষায় সবাইকে অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে হবে’ মাদককে না বলে, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলুন -শ্রাবস্তী রায় অতিরিক্ত ট্রাক ভাড়া ও সিন্ডিকেটের কারণে পেঁয়াজের দাম বাড়ে টেকনাফে সাংবাদিকদের সাথে সাক্ষাৎকালে মেয়র হাজী মোঃ ইসলাম বললেন, সবার মনে জেগে উঠুক দেশপ্রেম ইউএনও পারভেজ চৌধুরীর সাথে সাক্ষাৎ করলেন টেকনাফ পৌর প্রেসক্লাব

টেকনাফে নির্বাচন পরবতী সহিংসতা সাবরাং বাড়ীতে গুলি বর্ষন, হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট

টেকনাফ ভয়েস ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

প্রতিনিধি, টেকনাফ**

কক্সবাজারের টেকনাফে নির্বাচন পরবতী সহিংসতায় সাবরাং কচুবনিয়ায় তিন
বাড়ীতে গুলি বর্ষন, হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এটি সাবরাং ৩ নাম্বার
ওয়াডে ইউপি সদস্য নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে।
২০ সেপ্টেম্বর সোমবার রাতে কেন্দ্রে ফলাফল ঘোষনার পর সাবরাং ইউনিয়নের ৩
নাম্বার ওর্য়াডে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন কবির আহম্মদ। এ ওর্য়াডে চার জন
ইউপি সদস্যে প্রতিদন্ধিতা করে। তৎমধ্যে পরাজিত প্রাথী ছিদ্দিক আহমদের
নেতৃত্বে সাদ্দাম, আবুল কালাম, শফিক, আয়ুব, হোসন আহমদ, হারুন, রফিক,
নাগু, জামাল, আলী হোসন, জলিল, ইউসুফ ও আশিফসহ ২০/২৫ জনের একটি দল দেশীয়
অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে আরেক পরাজিত প্রার্থী বর্তমান মেম্বার জাফর আহম্মদের
সমর্থক সাবরাং কচুবনিয়া এলাকার আব্দুল হামিদ তার ছেলে আব্দুল হামিদ, মো
সাকেরের ঘরে এসে একের পর এক গুলি বর্ষন, বাড়ী ঘর ভাংচুর, লুটপাট ও
নির্যাতন চালায়। এসময় বাড়ীর লোকজন পালিয়ে যাওয়ায় তারা প্রাণে রক্ষা
পেয়েছে।
এদিকে ক্ষতিগ্রস্ত আব্দুল হামিদের ছেলে আজিজুল হক জানান, স্থানীয় ইউপি
নির্বাচনে আমার পরিবার বর্তমান মেম্বার জাফর আহম্মদের পক্ষে কাজ করায় একই
এলাকার সিদ্দিক আহমদ ও তার সর্মথকরা আগে থেকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে
আসছিল। নির্বাচনী ফলাফল শেষে বাড়ীতে চলে আসি। রাত গভীর হতে না হতে
উপরোক্ত সন্ত্রাসীরা চড়াও হয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় বাড়ীতে এসে ৪ রাউন্ড গুলি
বর্ষন, বাড়ীর ঘেরা বেড়া, দরজা জানালা ভাংচুর চালায়, বাড়ীতে ডুকে বৃদ্ধ
মাতা মদিনা খাতুন, বোন মোহছেনা, আয়েশা ও আফিয়া খাতুনকে মারধর ও নির্যাতন
করে। এতে আলমিরা ভাংচুর, স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাও লুট করে নিয়ে যায়।
এমনকি ঘটনার বিষয়ে কাউকে জানালে আমাদের হত্যা করা হবে বলে হুমকি দিয়ে
যায়।
একই ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ফিরোজা খাতুন জানান, স্থানীয় ইউপি নির্বাচনে
মেম্বার প্রার্থী জাফর আহম্মদের আপেল মার্কার পক্ষে কাজ করায় আরেক
প্রার্থী সিদ্দিক আহমদ ও সর্মথকরা আমাদের প্রাণ নাশের হুমকি ধমকি দিয়ে
আসে। আমার ছেলে আবছার কেন্দ্রে এজেন্ট ছিল এবং নির্বাচনী ফলাফল শেষে
স্বামী মোঃ সাকের ও ছেলে আবছার বাড়ীতে চলে আসে। গভীর রাতে উপরোক্ত
সন্ত্রাসীরা চড়াও হয়ে আমার বাড়ীতে এসে পর পর ৬ রাউন্ড গুলি বর্ষন, ঘেরা
বেড়া, দরজা জানালা ভাংচুর, আমাকে মারধর ও নির্যাতন চালায়। এতে
স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাও লুট করে নিয়ে যায়।
তবে একই ভাবে মৃত এজাহার মিয়ার ছেলে আব্দুল খালেকের বাড়ীতেও গুলি বর্ষন,
হামলা ও ভাংচুর চালায় বলে জানায়।

এ ঘটনায় সাবরাং কচুবনিয়া এলাকার আব্দুল খালেক, আজিজুল হক ও ফিরোজা খাতুন
বাদী হয়ে ছিদ্দিক আহমদ ও সাদ্দামকে প্রধান আসামী করে টেকনাফ মডেল থানায়
আলাদা অভিযোগ দায়ের করেন। এ অভিযোগ নিয়ে থানা পুলিশের এসআই তোফায়েল
আহামদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ঘটনায় মামলার
প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 teknafvoice
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com